পদ্মা সেতুর ৪০৫০ মিটার দৃশ্যমান !

করোনাভাইরাস আতঙ্কের মাঝেই পদ্মা সেতুতে বসালো ২৭তম স্প্যান। শনিবার সকাল ৯টা ২০ মিনিটের সময় জাজিরা প্রান্তের ২৭ ও ২৮ নম্বর খুঁটির ওপর স্প্যানটি বসানো হয়। যার মাধ্যমে সেতুর ৪ হাজার ৫০ মিটার দৃশ্যমান হলো। শুক্রবার সকাল ৮টায় মুন্সিগঞ্জের কুমারভোগ জেটি থেকে শক্তিশালী ভাসমান ক্রেন তিয়ানিহাই স্প্যানটি নিয়ে রওয়ানা হয়। এরপর সকাল সাড়ে ১০টায় জাজিরা প্রান্তে এসে পৌঁছায়। পদ্মাসেতু বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ুন কবীর জানান, পদ্মা সেতু ২৭তম স্প্যান বসানোর মধ্যদিয়ে ৪ হাজার ৫০মিটার দৃশ্যমান হলো।

শনিবার সকাল ৯টা ২০মিনিটে জাজিরা প্রান্তে ২৭-২৮ নম্বর পিলারের ওপর ২৭তম স্প্যানটি বসানো হয়েছে। শুক্রবার সকাল ৮টায় মুন্সিগঞ্জের কুমারভোগ জেটি থেকে শক্তিশালী ভাসমান ক্রেন তিয়ানিহাই স্প্যানটি নিয়ে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে রওয়ানা হয়ে ওইদিন সকাল সাড়ে ১০টায় জাজিরা প্রান্তে এসে পৌঁছে। আজ শনিবার সকালে স্পেনটি পিলারের ওপর বসানো হয়। ২০১৭ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর সেতুর প্রথম স্প্যান, ২০১৮ সালের ২৮ জানুয়ারি দ্বিতীয় স্প্যান , ১০ মার্চ তৃতীয় স্প্যান, ১৩ এপ্রিল চতুর্থ স্প্যান, ২৯ জুন পঞ্চম স্প্যান বসানো হয়।

এ ছাড়া ২০১৯ সালের ২৩ জানুয়ারি ষষ্ঠ স্প্যান, ২০ ফেব্রুয়ারি সপ্তম স্প্যান, ২০ মার্চ অষ্টম স্প্যান, ১৮ এপ্রিল নবম স্প্যান ও ২-ফেব্রুয়ারি-২০২০ তারিখে ২৩তম স্প্যান বসানো হয়েছিল। ১১ ফেব্রুয়ারি ৩১ নম্বার পিলারের ওপর ২৪তম স্প্যান গত ১০মার্চ ২৬তম স্প্যান বসানো হয়। ২৭তম স্প্যানটি বসানোর মধ্যদিয়ে পদ্মা সেতুর কাজ আরও একধাপ এগিয়ে যায়।

এ নিয়ে জাজিরা প্রান্তে ১৭টি স্প্যান বসানো হলো। মঙ্গল মাঝির ঘাটের কাজল মাদবর বলেন, পদ্মা সেতুর কাজ এগিয়ে যাচ্ছে। ২৭তম স্প্যান বসছে দেখে খুশি হলাম। আশা করি পদ্মা সেতু ২০২১ সালের মধ্যে যানবাহন চলাচলের উপযোগী হবে। সেতু বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আ. কাদের বলেন, শনিবার পদ্মা সেতুর ২৭তম স্প্যানটি বসানো হলো। ইতোমধ্যে সেতুর প্রায় ৮৭.০৫ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। চলতি বছরের জুলাই মাসের মধ্যে সবক’টি স্প্যান বসিয়ে সেতুটি দৃশ্যমান করে তুলবো বলে আশা করছি।